Home Kuakata মাধবকুন্ড ঝর্না ও ইকো পার্ক

মাধবকুন্ড ঝর্না ও ইকো পার্ক

by belavumitourism
মাধবকুন্ড ঝর্না মাধবকুন্ড-ঝর্না-ও-ইকো-পার্ক.

বাংলাদেশের মৌলভিবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত এই মাধবকুন্ড ঝর্না।যা ভ্রমন প্রিয় মানুষদের একটি আকর্ষনীয় জায়গা। মাধবকুন্ড ঝর্না কে ঘিরে ২০০১ সালে ২৬৭ একর জমিতে ইকোপার্ক প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন এই ইকোপার্ক এর মধ্যে দিয়ে বয়ে গেছে অপরূপ সুন্দর ঝর্না,যা প্রায় ১৬২ ফুট উচু পাহাড় থেকে নেমে আসে। এই অপরূপ ঝর্না ছাড়াও রয়েছে নানা রকমের গাছগাছালি। এছাড়াও দেখা মিলে পাখ-পাখালি ও বানরের। এই ইকো পার্কে ঢোকার সময়েই দেখা যাবে চা বাগান। পার্কের ভিতরে রয়েছে খাসিয়া পল্লি, পান,সুপারীর বাগান। যা দেখে মন জুড়ায় অনায়াসে। বর্ষাকালে ঝর্নায় সর্বাধিক পানি প্রবাহ থাকলেও শীতকালে এই ঝর্না মোটেই হতাশ করে না।  সেইজন্য প্রায় সারা বছরজুরে পর্যটকদের আনাগোনা থাকে এখানে।

আশেপাশের ভ্রমনের স্থান:

এছাড়াও মাধবকুন্ড ঝর্না এর আশে পাশে অনেক যায়গা রয়েছে,আপনি চাইলে সেগুলোও ঘুরে দেখে আসতে পারেন। সময় নিয়ে সেভাবে আপনার ভ্রমন প্লান সাজিয়ে নিতে পারেন। আশেপাশে ভ্রমনের জন্য সুন্দর জায়গা গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো হামহাম ঝর্না, বাইক্কা বিল, হাকারুকি হাওর, নবাব বাড়ি মাধবপুর চা বাগান সহ অন্যান্য জায়গা ঘুরে দেখতে পারেন।

কিভাবে যাবেন:

বাসে ভ্রমন/যাতায়াত করলে সহজ হবে যেতে,বিয়ানীবাজার গামী যেকানো বাসে চড়ে কাঠালতলি বাজার নেমে যাবেন। সেখান থেকে কুব সহজেই সিএনজি করে মাধবকুন্ড যেতে পারবেন।

কোথায়  থাকবেন: 

মাধবকুন্ডতে থাকার জন্য জেলা পরিষদের অধিনে ২ টি আবাসিক হোটেল ও ২টি বাংলো রয়েছে। যেকানে থাকতে হলে আপনাকে অগ্র্রমি বুকিং করতে হবে।

তার থেকে ভাল হয় যদি আপনি মেীলোভিবাজারে বা শ্রীমঙ্গল রাত্রি জ়াপন করেন। এখানে অনেক হোটেল ও কটেজ রয়েছে। এখান থেকে আপনার সব যায়গায় ভ্রমন করতে সহজ হবে।

কোথায়  খাবেন:

মাধবকুন্ডে খুব ভালো মানের তেমন কোনো রেস্টুরেন্ট নেই। মোটামোটি মানের কিছু খাবারের যায়গা আছে। আর ওখানে তুলনামূলক খাবারের দাম ও একটু বেশি। তাই আপনি চাইলে থেকে যাবার সময় খাবার কিনে নিয়ে যেতে পারেন অথবা  শ্রীমঙ্গল বা সিলেটে ফিরে আপনি খাবার যেতে পারেন।

ভ্রমন টিপস :

  • জলপ্রপাত/ ঝর্নার খুব কাছে যাবেন না, গেলে খুবই সাবধান।
  • ঝর্নার নির্ধারিত সীমানার বাহিরে সাতার কাটতে বা গোসল করতে যাবেন না।
  • বর্ষার সময়ে ঘুরতে গেলে অবশ্যই ছাতা নিয়ে যাবেন।
  • সাথে করে কিছু হালকা খাবার নিয়ে যাবার চেষ্টা করবেন।
  • ওখানে নোটিশ বোর্ডে যা যা লেখা আছে তা পালন করার চেষ্টা করুন।
  • ঝর্নায় গোসল করার আগে পর্যাপ্ত জামা-কাপড় নিয়ে নিন।
  • যাতায়াতের সময়ে ভাড়া ভালো করে ঠিক করে নিবেন।

 

You may also like

Leave a Comment

লেখা কপি করে নিজেকে চোর প্রমান করবেন না দয়া করে